Home / লাইফস্টাইল / রাতে শান্তির ঘুম চান? জেনে নিন কিছু গোল্ডেন রুল !

রাতে শান্তির ঘুম চান? জেনে নিন কিছু গোল্ডেন রুল !

এই আর্টিকেলে আমরা আপনাকে কিছু সহজ নিয়ম এর কথা বলব তাদের যারা ঘুমাতে গেলে সহজে ঘুম আসে না বা ঘুম ভালো হয় না কিছুতেই। সারাদিন ক্লান্ত লাগে আর মেজাজও খিটখিটে হয়। তাই আসুন ঘুমানোর এই গোল্ডেন রুল মেনে চলি।

(১) প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে ঘুমাতে যাবেন ও নির্দিষ্ট সময়ে বিছানায় যাবেন ঘুমানর জন্য । এতে রাতে যেমন আপনার ভালো ঘুম হবে তেমনি দিনে আপনি অনেক বেশী কর্মক্ষম থাকবেন।

(২) সকালে খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠুন । এর ফলে রাতে আপনার তাড়াতাড়ি ঘুম আসবে।

(৩) যে গান বা যে কণ্ঠের কথা শুনলে আপনার ঘুম আসে বা যে পাশে ঘুমালে আপনি তাড়াতাড়ি ঘুমান, ঘুমাতে গেলে সেটি শুনুন বা সেইভাবে শুয়ে পড়ুন।

(৪) যদিও আমরা আমাদের ঘুমকে খুব বেশী নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না বিভিন্ন শারিরিক কারণে। মূলত আমাদের মস্তিস্ক ঘুম নিয়ন্ত্রণ করে তাই তার প্রয়োজনমত সে ঘুমকে প্রভাবিত করবে।

(৫) দুঃস্বপ্ন নিয়ে ভাববেন না। আমরা যা সপ্ন দেখি সাধারনত আমারা যখন জেগে উঠি তা ভুলে যাই।

(৬) কোন কিছু নিয়ে ঘুমানোর সময় অতিমাত্রায় ভাববেন না। আপনার বাচ্চা ঘুমের মধ্যে হাটছে দেখে ঘাবড়ে যাবেন না। এটা খুব দ্রুতই চলে যাবে আর সকালে সে এটা ভুলে যাবে। যদি দিনের বেলায় এমন কিছু ঘটে যা তার রাতের দুঃস্বপ্নের কারণ -এমন মনে হয় তবে সেটা নিয়ে সহজ সমাধান বের করুন। তাড়াহুড়া করে নিজের ঘুম নষ্ট করবেন না। সাধারন ড্রাগ বা এলকোহলের জন্য ঘুমের মধ্যে হাটা বা দুঃস্বপ্নের মতো ঘটনা ঘটে থাকে। আর রাতে ঘুমের মধ্যে হাঁটার ঘটনা ঘটলে যাতে কোন কিছুতে আঘাত না লাগে সেই ব্যবস্থা নিন।

(৭) কোন কারণের আপনার যদি কোনোদিন ঘুম না আসে তাতে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হবেন না। কারণ ঘুম একটি সেলফ রেগুলাটেড বিষয়। সে তার প্রয়োজনমতো ফিরে আসবে।

(৮) আপনি যতটা ঘুমাতে চান ততটা ঘুম যদি আপনার না হয় এটা নিয়ে অসহ্য হয়ে উঠবেন না। এটা নিয়ে পরিবারের অন্যদের মাঝে আতংক ছড়াবেন না। একে অপরকে সাহায্য করুন , মনকে খোলামেলা রাখুন আর মস্তিস্ক রিলাক্স রাখুন।

(৯) নুতন কাজ, সাহচর্য আর পরিতৃপ্তি আপনাকে দ্রুত ঘুমাতে সাহায্য করবে।

(১০) রাতে ভালো ঘুমানোর জন্য দিনের বেলায় বেশী পরিশ্রম করুন বিশেষ করে কায়িক পরিশ্রম। কোন ব্যায়াম নুতন শুরু করলে তা হালকাভাবে প্রথমে শুরু করুন।

(১১) আপনি আপনার ঘরের জন্য কোন বিলাশ বহুল আইটেম কিনতে গেলে প্রথমে চিন্তা করুন এই কেনা জিনিসটা দরকারী নাকি – ঘুমানোর জন্য একটি সুন্দর আরামদায়ক বিছানা কিনবেন। একটি আরামদায়ক সুন্দর ও মনোরম বিছানা আপনার ভালো ঘুমের জন্য অতি ভালো ও প্রয়োজনীয় বিনিয়োগ।

(১২) আপনি যদি ধূমপান করেন আর রাতে ঘুম ভালো না হয় তাহলে স্মোকিং ছেড়ে দেয়ার চেষ্টা করুন। আর সন্ধ্যায় কফি বা চা পান করবেন না যদি রাতে ভালো ঘুমাতে চান।

(১৩) ঘুমানর জন্য স্লিপিং পিল খাবেন না।

(১৪) ঘুম আনার জন্য কখনও মদ্য পানের আশ্রয় নিবেন না।

(১৫) যদি কোন কারণে আপনার পারিবারিক ডাক্তার আপনাকে স্লিপিং পিল খেতেও বলে আপনার ঘুমের অভ্যাসকে ফিরিয়ে আনার জন্য তবে, পর পর ৩ দিনের বেশী এটি নিবেন না।

(১৬) শরীরের ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন। আপনি যদি ওভার ওয়েট হন আর যখন ডায়েট নিয়ে ওজন কমানোর চেষ্টা শুরু করবেন তখন আপনার স্লিপ- লস হতে পারে।

(১৭) আপনার খাবার খাওয়ার সময় নির্দিষ্ট রাখুন। একদিন আগে আগে খাবেন আর একদিন দেরিতে খাবেন এমন যেন না হয়। রাতের খাবারে দিকে বিশেষ নজর দিন যেন সহজে হজমযোগ্য হয়। রাতের জন্য সঠিক খাবার আপনার ভালো ঘুমের জন্য বিশেষভাবে সহায়ক।

(১৮) সবশেষে,যা কিছু আপনার আছে-আপনি যেমন- যা কিছু আপনার ছোটোখাটো ভুল বা অসফলতা তা সহজভাবে নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যাবার চেষ্টা করুন । আপনার অপূর্ণ কোন ইচ্ছা নিয়ে খুব সময় দিলে আপনার ঘুমের সমস্যা প্রকট হতে পারে।

আমরা জানি ভুল , অপূর্ণতা বা কোন আশা যা আপনি পুরণ করতে পারেননি তা ভুলে থাকা হয়ত খুব সহজ নয় কিন্তু মনে রাখবেন আমরা কেউ জানি না আসলে সামনের দিনে আমাদের জন্য কি অপেক্ষা করছে। হয়ত কোন সোনালী ভোর । তাই আজ রাতে ভালো ঘুমান আগামীকালের ভোর উপভোগ করার জন্য।

Check Also

678

প্রতিদিন সকালে এক গ্লাস হলুদ দুধ পান করার ৬ স্বাস্থ্য উপকারিতা!

স্বাস্থ্য সচেতন অনেকেই নিয়মিত দুধ পান করেন। আপনি জানেন কি সকালে খালি পেটে হলুদ দুধ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *