Home / খেলা / নাফীস-মুশফিকের ফিফটিতে বরিশালের ১৪৮!!

নাফীস-মুশফিকের ফিফটিতে বরিশালের ১৪৮!!

মুশফিকুর রহীম ৫.৩ ওভারের সময় ক্রিজে এলেন। শাহরিয়ার নাফীসের প্রথম অষ্টম ওভারের শেষ বল। যথাক্রমে ৪ ও ৫ নম্বর ব্যাটসম্যান। ৫৫ রানের আলো ঝলমলে ইনিংস খেলে নাফীস বিদায় নেন ১৬.২ ওভারে। আর ইনিংসের শেষ বলে ১ রান নিয়ে হার না মানা ফিফটি করে ফেরেন মুশফিক। বরিশাল বুলসের অধিনায়ক। একজন ইনিংসটাকে মেরামত করে দ্রুত সংগ্রহ বড় করে ফিরেছেন। অন্যজন দলের হাল ধরে লড়ার মতো স্কোর বানিয়ে এসেছেন। এই দুইয়ের ফিফটিতেই দারুণ চাপ মাথায় নিয়েই ৬ উইকেটে ১৪৮ রান করতে পেরেছে বরিশাল বুলস। সাকিব আল হাসানের ঢাকা ডাইনামাইটসের সামনে দিয়েছে চ্যালেঞ্জ।

মিরপুরে মঙ্গলবার দ্বিতীয় ম্যাচে ৪৪ রানে শীর্ষ ৩ উইকেট হারাল বরিশাল। মুশফিক ও নাফীস এরপর চতুর্থ উইকেটে ৮২ রানের জুটি গড়েছেন ওভার প্রতি ৯.৬৪ রান তুলে। ছক্কা মেরে প্রথমে পথ দেখিয়েছিলেন মুশফিক। এরপর আগ্রাসী বিপিএলে বাংলাদেশের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ান নাফীস। মোসাদ্দেক হোসেনকে দুটি বাউন্ডারি মারলেন। সাকিবকে ছক্কা হাঁকালেন। চার মারলেন একই ওভারে। ডোয়াইন ব্রাভোও তার ছক্কার শিকার। ৩১ বলে হলো ফিফটি। কিন্তু মোহাম্মদ শহীদ তাকে তুলে নিলেন। ৩৪ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৫৫ রান নিয়ে ফেরেন নাফীস।

থিসারা পেরেরা (২) ও রায়দ এমরিট (১) বিদেশি হিসেবে প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেননি। একাই খেলে যাচ্ছিলেন মুশফিক। অধিনায়ক এরপর এই সময়ের সেনসেশন মেহেদী হাসান মিরাজকে পেলেন ৭ বলের জন্য। শেষ ওভারে ঝুঁকিপূর্ণ একটি সিঙ্গেলই মুশফিকের ফিফটির সুযোগ করে দেয়। শেষ বলে হয় তা। ৩৬ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কায় ৫০ রানের অপরাজিত ক্যাপ্টেন্স নক খেলে ফেরেন মুশফিক। ২ বলে ২ রান করে অপরাজিত মেহেদী।

এই খেলায় অবশ্য ফিল্ডিং দল ঢাকার দুজনার নাম করতে হবে বিশেষ ভাবে। শহীদ ৪ ওভারে ২১ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন। ওপেনার শামসুর রহমান (৬) তার শিকার। নাফীসের দামি উইকেটটাও তার। এমরিটকে দাঁড়াতে দেননি পরে। আর নাসির হোসেন ডোয়াইন ব্রাভোর বলে দিলশান মুনাবিরার (১২) ক্যাচটা পয়েন্টে নিয়েছিলেন পাখির মতো উড়ে। যেন ডানা গজিয়েছিল। কিন্তু সবকিছুর পরও ধাক্কা সামলে লড়াইয়ের কৃতিত্ব নাফিস-মুশফিকদের।

Check Also

764

যেন পাখি হয়ে উড়ে ক্যাচ ধরলেন নাসির!

নাসির হোসেন কি পাখি কোনো? ঈগলের মতো চোখ! ডানা আছে তার? নাকি সুপারম্যান কোনো! এমন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *